রাজ্য

ফের মাথাচাড়া দিচ্ছে করোনা, সাড়ে ৭ মাস পর একদিনে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়াল ১০ হাজারেরও বেশি, উদ্বেগে বিশেষজ্ঞরা

বিগত বেশ কিছুমাস ধরে নিয়ন্ত্রণেই ছিল করোনা সংক্রমণ। কিন্তু এবার ফের একটু একটু করে তা বাড়ছে। ফের পরিস্থিতি বিপজ্জনক হওয়ার দিকে এগোচ্ছে বলে জানালেন বিশেষজ্ঞরা। আজ, বৃহস্পতিবার করোনা আক্রান্তের সংখ্যা পেরিয়ে গেল ১০ হাজার যা গত সাড়ে সাত মাসে এই প্রথম।

স্বাস্থ্য মন্ত্রকের রিপোর্ট অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১০ হাজার ১৫৮ জন। গতকাল এই সংখ্যাটা ছিল ৮ হাজারের কাছাকাছি। সাড়ে সাত মাস পর দৈনিক করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা পেরল ১০ হাজারের গণ্ডি। শুধু তাই-ই নয়, দৈনিক পজিটিভিটির রেট বেড়ে দাঁড়াল ৪.৪২ শতাংশে। সক্রিয় রোগীর সংখ্যাও ক্রমে বাড়ছে। এই মুহূর্তে দেশে সক্রিয় করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ৪৪ হাজার ৯৫৮ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনার জেরে মৃত্যু হয়েছে মোট ১৫ জনের। এর ফলে দেশে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৫ লক্ষ ৩১ হাজার ৩৫-তে। সুস্থতার হার সামান্য হলেও নিম্নমুখী। বর্তমানে সুস্থতার হার ৯৮.৭১ শতাংশ।

কিছুদিন আগেই সুস্থতার হার পৌঁছে গিয়েছিল ৯৯ শতাংশের কাছাকাছি। মহারাষ্ট্র এবং দিল্লির পরিসংখ্যান বেশ উদ্বেগজনক। দুই রাজ্যেই দৈনিক আক্রান্ত হাজারেরও বেশি। মহারাষ্ট্রে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনার জেরে ৯ জন প্রাণ হারিয়েছেন। গতকাল এরাজ্যেও একজনের করোনায় মৃত্যু হয়েছে।

বিশেষজ্ঞদের অনুমান, আগামী ১০-১২ দিন করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ক্রমে বাড়তেই থাকবে। জানা যাচ্ছে, এই অতিমারি এন্ডেমিক পর্যায়ে রয়েছে। ওমিক্রনের নতুন স্ট্রেনের জেরেই এই সংক্রমণ ঘটছে। তবে জানা গিয়েছে, এই নয়া স্ট্রেনের সংক্রমণের হার বেশি হলেও মারণ ক্ষমতা খুবই কম। তবে আগামী ১০-১২ দিনেই থাবা বসাতে পারে করোনা। সেই কারণে সতর্কতা জারি করা হল বিশেষজ্ঞদের তরফে। বেশ কিছু রাজ্যে ইতিমধ্যেই মাস্কের ব্যবহার ফের শুরু করা হয়েছে।

Back to top button
%d bloggers like this: