রাজ্য

‘কেউ চুরি-দুর্নীতি করবে না, এমনটা হতে পারে না, সবাই তো রামকৃষ্ণ মিশনের সদস্য নয়’, নিয়োগ দুর্নীতি নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য শুভাপ্রসন্নের

রাজ্য এখন নিয়োগ দুর্নীতি নিয়ে উত্তাল। আর এই দুর্নীতিতে নাম জড়িয়েছে তৃণমূলের তাবড় তাবড় নেতাদের। দু’দিন আগেই গ্রেফতার হয়েছেন হুগলির তৃণমূল যুব নেতা কুন্তল ঘোষ। তা নিয়ে শাসক দল বেশ অস্বস্তিতে। এবার এই নিয়োগ দুর্নীতি নিয়েই বেফাঁস মন্তব্য করে বিতর্কে জড়ালেন শিল্পী শুভাপ্রসন্ন ভট্টাচার্য। নিয়োগ দুর্নীতি নিয়ে তাঁর মন্তব্য, “দুর্নীতি আছে আবার ভালোও আছে”।

গতকাল, রবিবার হুগলি জেলার খানাকুলের ঘোষপুরের নেতাজি ইউনিয়ন বিদ্যাপীঠের ৭৫ বছর পূর্তি অনুষ্ঠানে যোগ দেন শুভাপ্রসন্ন ভট্টাচার্য। সেই অনুষ্ঠানেই এক সংবাদমাধ্যমের সাংবাদিক তাঁকে দুর্নীতি নিয়ে প্রশ্ন করেন।

সেই প্রশ্নের উত্তরে শুভাপ্রসন্ন বলেন, “সব জায়গায় দুর্নীতি আছে, আবার ভালও আছে। একেবারে সমাজে থেকে কেউই চৌর্যবৃত্তি করবে না, দুর্নীতি করবে না। এটা হবে না। সবাই তো রামকৃষ্ণ মিশনের মেম্বার নয়। সুতরাং ভালও থাকবে, মন্দও থাকবে। আমাদের ভালটা বেছে নিতে হবে”।

বাংলার শিক্ষাব্যবস্থা ভেঙে পড়েছে। এই প্রসঙ্গে মন্তব্য করে তিনি বলেন, “না না, সবকিছুই ঠিক আছে। আমরা এটা সব সময় এটা মনে করি। সব তো পরিবর্তন হয়। সব সময় একরকম থাকে না। সুতরাং, বাংলা – বাংলাতেই আছে। এখন বহু শিল্পী, নাট্যকার, সাহিত্যিক আছে যারা সাহিত্য রচনা করছেন। কাজ করছেন। কোনওটাই থেমে নেই”।

বলে রাখি, গতকাল, রবিবার এই উৎসবের তৃতীয়দিন ছিল। অনুষ্ঠানের জন্য স্কুলে হাজির ছিলেন শুভাপ্রসন্ন ভট্টাচার্য। ছিলেন হুগলি জেলা পরিষদের শিক্ষাকর্মাধ্যক্ষ গোপাল রায়, স্কুল শিক্ষা দফতরের শিক্ষা বিষয়ক সিলেবাস কমিটির চেয়ারম্যান অভীক মজুমদার, এলাকার প্রধান হায়দর আলি ও অন্যান্যরাও। খানাকুলের এই প্রত্যন্ত গ্রামের স্কুলে চারদিন ব্যাপী এই অনুষ্ঠানে নাটক, গান, আবৃত্তি, বক্তৃতা নানান ধরনের প্রদর্শনীর আয়োজন করে ছাত্র-ছাত্রীরা।

Back to top button
%d