জ্যোতিষশাস্ত্র

রোম্যান্সের দিক দিয়ে বড়ই কাঁচা, প্রেম থেকে দূরে পালান এই ৫ রাশির জাতক-জাতিকা, আপনার সঙ্গী নেই তো এই তালিকায়?

সকলের স্বভাব-প্রকৃতি সমান হয় না। কেউ কেউ সম্পর্ককে ভালোবাসা দিয়ে বেঁধে রাখতে চান তো কেউ আবার প্রেম দেখলেই দূরে পালান, ওই মাখো মাখো প্রেম তাদের মোটেই পছন্দের নয়। তা বলে এই নয় যে নিজের সঙ্গীকে তারা ভালোবাসেন না, তবে স্বভাবের দিক দিয়ে মোটেই রোম্যান্টিক নন তারা। আপনার সঙ্গীটিও কী তেমন ধাঁচের? কীভাবে বুঝবেন?

জ্যোতিষশাস্ত্র বলছে, কিহু কিছু রাশি রয়েছে যাদের প্রেমের নাম শুনলেই জ্বর আসে। সেই রাশিগুলি কী কী, দেখে নেওয়া যাক-

ধনু রাশি

ধনু রাশির ব্যক্তিরা অন্তর্মুখী হন। চট করে মনের কথা কাউকে বলে না। তাছাড়া প্রেমের নাম শুনলেই এদের জ্বর আসে। এঁরা নিজেকে নিয়েই ব্যস্ত থাকে। খুব বেশি প্রেম বা অন্য মানুষকে চিন্তাভাবনা করে না। আর সম্পর্কে থাকলেও এরা সঙ্গীকে খুব বেশি সময় দেয় না। এমনকী এঁরা নিজের জীবনে রোম্যান্সের প্রয়োজনীয়তাও অনুভব করে না। ফলে সম্পর্কে ঝগড়া-অশান্তি লেগেই থাকে।

কন্যা রাশি

কন্যা রাশির জাতক, জাতিকারাও প্রেমের সম্পর্ক থেকে দূরে দূরে থাকতে চায়। ব্রেকআপ হওয়ার ভয়, কষ্ট পাওয়ার ভয়ে এঁরা প্রেমের সম্পর্কে জড়াতে চায় না। তাছাড়া এরা প্রেমময় সম্পর্ক খুব একটা পছন্দ করে না। রোম্যান্সের দিক দিয়েও এরা খুব কাঁচা হয়। তাই প্রেম নিবেদন করতেও এঁদের প্রচুর সময় লেগে যায়।

মিথুন রাশি

মিথুন রাশির ব্যক্তিরা খুব গতিশীল হয়। এঁরা মনের চেয়ে বেশি মাথার কথা শোনে। বুদ্ধি দিয়ে সব কিছু বিচার করে। তাই এঁরা চট করে প্রেমের সম্পর্কে জড়াতে চায় না। আর যদিও বা কোনও সম্পর্কে যায়, খুব বেশি সঙ্গীর সঙ্গে প্রেম করেন না। ফলে মিথুন রাশির সঙ্গীরা এঁদের প্রতি বিরক্ত হয়ে থাকে।

কুম্ভ রাশি

কুম্ভ রাশির ব্যক্তিরা বুদ্ধিজীবী মানুষ পছন্দ করেন। এরা সব সময় বুদ্ধিজীবী সঙ্গীর খোঁজে থাকে। এদের জীবনে রোম্যান্সের কোনও জায়গা নেই। তাই এরা সব সময় এমনই সঙ্গী খোঁজে যাঁদের মধ্যে প্রেম নিয়ে মাতামাতি নেই। এরা মনের চেয়ে বেশি মস্তিষ্কের কথা শোনে। আবেগের মাধ্যমে কোনও কাজ এঁরা করেন না।

মকর রাশি

মকর রাশির জাতক, জাতিকারা প্রেম থেকে সব সময় দূরে থাকে। এঁরা চট করে কারও প্রেমে পড়ে না। আর যদিও বা প্রেমে পড়েন কিংবা সম্পর্কে জড়ায় তাহলে সেই সম্পর্ক দীর্ঘস্থায়ী করার চেষ্টা করে। কিন্তু খুব বেশি রোম্যান্টিক প্রকৃতির এরা হয় না। এদের লাইফস্টাইলেও খুব বেশি অদল-বদল থাকে না। অ্যাডভেঞ্চার থেকে এরা দূরেই থাকতে ভালবাসে। এরা সঙ্গী প্রতি নিষ্ঠাবান হলেও, একসঙ্গে খুব বেশি সময় কাটান না।

Back to top button
%d