রাজ্য

‘উনি ধান্দাবাজ, এসব করে অর্থ উপার্জন করতে চান, শালবনিতে ঢপের চপ হবে’,ইস্পাত কারখানা গড়ার ঘোষণায় সৌরভকে তীব্র আক্রমণ শুভেন্দুর

গত শুক্রবার মাদ্রিদে বেঙ্গল গ্লোবাল সামিটের অনুষ্ঠান সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় ঘোষণা করেছিলেন যে রাজ্যে তিনি ইস্পাত কারখানা গড়বেন। তিনি জানান, পশ্চিম মেদিনীপুরের শালবনিতে জিন্দালদের ফেলে রাখা জমিতেই তিনি তৈরি করবেন ইস্পাত কারখানা। এর জন্য প্রাথমিক পর্যায়ে আড়াই হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগের কথাও বলেন তিনি। তাঁর এই ঘোষণাকেই এবার কটাক্ষ করলেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী।

কী বলেন শুভেন্দু?

গতকাল, রবিবার উত্তর ২৪ পরগণার সোদপুরের শ্রীপল্লী এলাকায় গণেশ পুজোর উদ্বোধনে গিয়েছিলেন শুভেন্দু অধিকারী। সেখানেই সৌরভের ইস্পাত কারখানা গড়ার ঘোষণা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “সৌরভের সঙ্গে স্পেনের কি সম্পর্ক? বেহালা থেকে মাদ্রিদ হয়ে শালবনি! এটা শিল্প নয়। ঢপের চপ। এরকম অনেক কিছু দেখেছি। শালবনিতে আগেও কিছু হয়নি, এখনও কিছু নেই, ভবিষ্যতেও কিছু হবে না। শালবনিতে ইস্পাত কারখানার নামে ঢপের চপ হবে”।

সৌরভকে ‘ধান্দাবাজ’ বলে কটাক্ষ বিজেপি নেতার

শুভেন্দুর দাবী, “ব্যক্তি সৌরভ, তাঁর খেলা, এগুলোকে সম্মান করি। সৌরভ সবসময় বাণিজ্যিক চিন্তাভাবনা নিয়ে কাজ করেন। তিনি বাম আমলে অশোক ভট্টাচার্য ও বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যকে ম্যানেজ করে জমি নিয়েছিলেন স্পোর্টস অ্যাকাডেমি করবেন বলে। করেননি। সেই জমিতে উনি বাণিজ্যিকভাবে ইংলিশ মিডিয়াম স্কুল করতে গিয়েছিলেন। কোর্টের নির্দেশে জমি ফেরত দিতে বাধ্য হয়েছেন। দ্বিতীয়বারে নিউটাউনে জমি নিয়েছিলেন। করেননি। তিনি এই সব ধান্দাবাজি করে নিজের অর্থ উপার্জন করতে চান”।

শুভেন্দুর এহেন মন্তব্যে তৃণমূল তো বটেই, বিজেপির একাংশের মধ্যেও তীব্র প্রতিবাদ জানানো হয়েছে। তাদের কথায়, ভারতীয় ক্রিকেটকে ডুবে যাওয়া থেকে বাঁচিয়েছিলেন সৌরভ। বাঙালি হিসেবে গোটা পৃথিবীতে মুখ উজ্জ্বল করেছেন তিনি। তাঁকে ঘিরে বাঙালির আলাদাই আবেগ কাজ করে। তাই সকলের প্রিয় ‘দাদা’কে এভাবে আক্রমণ করা একেবারেই উচিত হয়নি শুভেন্দুর।

গত শুক্রবার ইস্পাত কারখানা গড়ার ঘোষণার পর সৌরভ বলেছিলেন, “আমি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে খুশি করতে বলছি না। কিন্তু মেদিনীপুরে এই ইস্পাত কারখানা গড়ে তোলার জন্য সরকার থেকে আমার অনুমতি পেতে মাত্র চার-পাঁচ মাস সময় লেগেছে। সরকার সবরকম ভাবে সাহায্য করেছে”।

Back to top button
%d bloggers like this: