রাজ্য

‘বিজেপি আয়ু আর ছ’মাস, মোদীজি আজ আছেন, কাল চলে যাবেন’, ভবিষ্যৎবাণী মমতার, দিল্লিতে নিজের সরকার গঠনের আভাস তৃণমূল নেত্রীর?

আগামী বছরই রয়েছে লোকসভা নির্বাচন। আর আগামী মাসে রাজ্যে পঞ্চায়েত নির্বাচন। স্বাভাবিকভাবেই পঞ্চায়েত নির্বাচনের আবহে লোকসভা নির্বাচনও বেশ প্রাসঙ্গিক হয়ে উঠেছে। ফলে পঞ্চায়েত ভোটের প্রচার করতে গিয়ে বারবার উঠে আসছে লোকসভা ভোটের কথা। আজ, মঙ্গলবার জলপাইগুড়ির সভা থেকেও সেই একই আভাস শোনা গেল মুখ্যমন্ত্রী ম্মতকা বন্দ্যোপাধ্যায়ের গলায়। বিজেপি সরকারের আয়ু আর বেশিদিন নয়, এমনটাই ভবিষ্যৎবাণী করে দিলেন তিনি।

এদিন জলপাইগুড়ির সভা থেকে হুঁশিয়ারি শানিয়ে মমতা বলেন, “বিজেপির আয়ু আর ছ’মাস। আমি যদি ভারতকে চিনে রাখি তাহলে চব্বিশে ওরা ধুয়ে যাবে”।

শুধু আজই নয়, গতকাল, সোমবার কোচবিহারের সভা থেকেও কেন্দ্রের বিরুদ্ধে একইভাবে আক্রমণ শানিয়েছিলেন মমতা। বেশ প্রত্যয়ী সুরেই তিনি বলেছিলেন, শীঘ্রই কেন্দ্রে নতুন সরকার গঠিত হবে। বিজেপির ‘ডবল ইঞ্জিন’ তত্ত্বকেও অগ্রাহ্যই করেন মমতা। তৃণমূল নেত্রীর দাবী, ডবল ইঞ্জিনের একটা ফুটো হবে পঞ্চায়েত ভোটে আর তারপর দ্বিতীয় ফুটো হবে লোকসভা ভোটে।

মমতার এহেন হুঁশিয়ারি পাল্টা দেন বিজেপি মুখপাত্র শমীক ভট্টাচার্য। তিনি বলেন, “২০১৯ সালের জানুয়ারিও মাসে ব্রিগেড প্যারেড গ্রাউন্ডে কাশ্মীর থেকে কন্যাকুমারী পর্যন্ত নেতাদের এনে হাত ধরে দাঁড় করিয়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই কর্মসূচির নাম ছিল ইউনাইটেড ইন্ডিয়া র‍্যালি। তারপর কী হয়েছিল সবাই দেখেছেন। এবার আরও আগে উনি এসব করা শুরু করেছেন। ফলে ধরেই নেওয়া যায় আগের বারের থেকে বিজেপি আরও বেশি আসন নিয়ে সরকার গড়বে”।

এদিন পরোক্ষভাবে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর আমেরিকা সফর নিয়েও কটাক্ষ করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর কথায়, “গোটা দেশটাকে বেঁচে দিচ্ছে। আমেরিকাকে কত টাকা দিয়ে এল? রাশিয়াকে কী দিয়ে দিল”? তিনি এও বলেন, দেশের মাটিতে সংখ্যালঘু নিধন যজ্ঞ চালিয়ে এখন আমেরিকার কাছে প্রশংসা কুড়োতে কিছু মুসলিমকে দিয়ে সাজিয়ে নানান কথা বলানো হচ্ছে।

এদিন একদিকে যখন মোদী সরকারকে তুলোধোনা করছেন মমতা, ঠিক তখনই আবার অন্যদিকে মধ্যপ্রদেশের ভোপালের সভা থেকে তৃণমূলকে আক্রমণ করেন নরেন্দ্র মোদী। তাঁর দাবী, বাংলার সরকারের বিরুদ্ধে ২৩ হাজার কোটি টাকারও বেশি দুর্নীতির অভিযোগ রয়েছে, এদিন প্রধানমন্ত্রীর কথায় উঠে আসে কয়লা পাচার, গরু পাচার, শিক্ষাক্ষেত্রে দুর্নীতি-সহ রাজ্যের এমন নানান দুর্নীতির প্রসঙ্গ।

Back to top button
%d bloggers like this: