রাজ্য

৬৬ বছরের বৃদ্ধাকে ধ’র্ষ’ণের চেষ্টার অভিযোগ তৃণমূল নেত্রীর ছেলের বিরুদ্ধে, বাধা দিলে বৃদ্ধাকে বেধড়ক মারধর, ‘ছেলেকে ফাঁসানো হচ্ছে’ দাবী মায়ের

৬৬ বছরের বৃদ্ধাকে ধ’র্ষ’ণের চেষ্টার অভিযোগ উঠল তৃণমূল নেত্রীর ছেলের বিরুদ্ধে। বৃদ্ধা বাধা দিতে গেলে তাঁকে বেধড়ক মারধর করা হয় বলেও অভিযোগ। এই ঘটনায় থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করে নির্যাতিতা বৃদ্ধার পরিবার। ঘটনাটি প্রকাশ্যে আসতেই গোটা এলাকায় শোরগোল পড়ে গিয়েছে। অভিযুক্ত পলাতক। ঘটনাটি ঘটেছে তারকেশ্বরে।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, নির্যাতিতা বৃদ্ধা একজন সবজি বিক্রেতা। প্রতিদিনের মতো গত ২২শে জানুয়ারিও ভোরে তারকেশ্বরের বাজারে যাচ্ছিলেন আক্রান্ত বৃদ্ধা। সেই সময় অভিযুক্ত যুবক তাঁকে একটি স্কুলের মাঠে টেনে নিয়ে যায় ও ধ’র্ষ’ণের চেষ্টা করে। বৃদ্ধা তাকে বাধা দিতে গেলে বেধড়ক মারধর করা হয় বলে অভিযোগ। এই ঘটনায় সরব হয়েছে বিজেপি। অভিযুক্ত যুবকের মা অর্থাৎ তৃণমূল নেত্রীর দাবী তাঁর ছেলেকে ফাঁসানো হচ্ছে।

নির্যাতিতা ওই বৃদ্ধার বয়ান অনুযায়ী, তাঁর চিৎকার শুনতে পেয়ে এলাকার কয়েকজন তাঁকে উদ্ধার করে চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যান। দু’দিন ঘটনা চাপা থাকলেও পরে ঘটনার একটি ভিডিও প্রকাশ্যে আসে। এরপরই গত মঙ্গলবার বৃদ্ধার মেয়ে তারকেশ্বর থানায় লিখিত অভিযোগ করেন। সেই অভিযোগের প্রেক্ষিতেই তদন্ত শুরু করেছে তারকেশ্বর থানার পুলিশ। অন্যদিকে, এই ঘটনার পর দিনই এলাকা থেকে পালিয়ে যান অভিযুক্ত। তাঁর খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ।

এই ঘটনা প্রসঙ্গে অভিযুক্তের মায়ের দাবী, “তিন দিন আগে বাড়িতে বেশ কয়েক জন আসে তাঁদের মুখ থেকে ঘটনা শুনি। এরপরই ছেলে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যায়। তাকে ফাঁসানো হচ্ছে। ছেলে যদি অপরাধ করে তার শাস্তি চাই। কিন্তু প্রমাণ কোথায়”?

এই ঘটনা সামনে আসতেই তা নিয়ে সরব হয়েছে বিজেপি। বিজেপির আরামবাগ সাংগঠনিক জেলার সদস্য গণেশ চক্রবর্তী এই ঘটনা প্রসঙ্গে বলেন, “তারকেশ্বর পৌরসভার চেয়ারম্যান ঘনিষ্ঠ ওই যুবক। সে কারণেই অপরাধ করে পার পেয়ে যাচ্ছে। এটা অত্যন্ত লজ্জার”। এই বিষয়ে পৌরসভার চেয়ারম্যানের কোনও প্রতিক্রিয়া মেলেনি।

এই বিষয়ে তারকেশ্বরের বিধায়ক তথা আরামবাগ সাংগঠনিক জেলার সভাপতি রামেন্দু সিংহ রায় বলেন, “দল অপরাধ প্রশয় দেয় না। যদি ওই যুবক অপরাধের সঙ্গে যুক্ত থাকে তার শাস্তি হবে। পুলিশকে বলেছি যথাযথ ব্যবস্থা নিতে”।

Back to top button
%d