দেশ

পুলওয়ামা হামলার চতুর্থ বর্ষপূর্তি! নিহত জওয়ানদের শ্রদ্ধা জ্ঞাপন প্রধানমন্ত্রীর, দেশবাসী কী মনে রেখেছে সেই শহিদ বীরদের?

আজ ১৪ই ফেব্রুয়ারি। ভারতবর্ষের জন্য এই দিনটি একটি ‘কালো দিবস’ই বটে। চার বছর আগে ২০১৯ সালে এই দিনটিতেই বীর জওয়ানদের রক্তে ভিজেছিল দেশের মাটি। নিহত হয়েছিলেন ৪০ জন জওয়ান। দেশবাসী কী এখনও সেই বীরদের মনে রেখেছে?

২০১৯ সালের ১৪ই ফেব্রুয়ারি। গোটা পৃথিবীর কাছে ভালোবাসার দিন হলেও, ভারতের কাছে যেন এটা একটা অভিশপ্ত দিন। এদিনই এক নারকীয় হামলায় জম্মু ও কাশ্মীরের পুলওয়ামায় বাহিনীদের কনভয়ে এক আত্মঘাতী জঙ্গি আইইডি বিস্ফোরণ ঘটে। আর সেই বিস্ফোরণে নিহত হয়েছিলেন ৪০ সিআরপিএফ জওয়ান। 

বিস্ফোরক ভর্তি গাড়ি নিয়ে সেনাদের কনভয়ে ঢুকে বিস্ফোরণ ঘটায় ২২ বছর বয়সী আত্মঘাতী জঙ্গি আদিল আহমেদ দার। এই হামলায় অভিযোগের তীর যায় পাকিস্তানের দিকে। ন্যাশনাল ইনভেস্টিগেশন এজেন্সি বা এনআইএ-র ১২ সদস্যের বিশেষ দল এই ঘটনার তদন্ত করে। জানা যায়, ৩০০ কিলো বিস্ফোরক নিয়ে একটি গাড়ি ধাক্কা মারে কনভয়ে। এর মধ্যে ৮০ কিলো আরডিএক্স ছিল। পাকিস্তানের নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন জইশ-ই-মহম্মদ ওই হামলার দায় স্বীকার করে। 

ওই দিন ৭৮টি বাসে করে প্রায় আড়াই হাজার জওয়ান জম্মু থেকে শ্রীনগরে যাচ্ছিলেন। সেই সময়ই ঘটানো হয় ওই বিস্ফোরণ। এই হামলার পরই ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে সম্পর্কের অবনতি হয়। হামলার প্রত্যাঘাত হিসেবে নিয়ন্ত্রণরেখার ওপারে বালাকোটে এয়ার স্ট্রাইক চালায় ভারতীয় বায়ুসেনা।

আজ, মঙ্গলবার পুলওয়ামা হামলার চতুর্থ বর্ষপূর্তিতে শহিদ জওয়ানদের স্মৃতির উদ্দেশ্যে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তিনি টুইটারে লেখেন, “পুলওয়ামায় শহিদ হওয়া সেই হিরোদের স্মরণ করছি। আপনাদের আত্মবলিদান আমরা কখনও ভুলব না। সেনা জওয়ানদের সাহসিকতাই শক্তিশালী ও উন্নত ভারত গড়ার অনুপ্রেরণা জোগায়”।

Back to top button
%d bloggers like this: