রাজ্য

ছোঁয়াচে! প্রার্থী তালিকা নিয়ে বিক্ষোভ লাগাতার, ইস্তফার রাস্তায় হাঁটলেন ১৭ জন দাপুটে বিজেপি নেতা

প্রার্থী তালিকা নিয়ে প্রথমে বিক্ষোভ দেখা যায় তৃণমূলে। দল ছাড়েন একাধিক তৃণমূলের হেভিওয়েট নেতা। বিধানসভা নির্বাচনে টিকিট না পাওয়ার জন্য‌ই এই ক্ষোভ।

এই ঘটনার আশঙ্কা নিজেদের জন্য‌ও করেছিল বিজেপি শিবির। ঘটনা ঘটলও তাই। তালিকা প্রকাশ হতেই দিকে দিকে প্রার্থী তালিকা নিয়ে ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ ঘটছে। কোথাও তৃণমূলের সমর্থনে প্রচার চালাচ্ছে বিজেপি, আবার কোথাও নির্দল প্রার্থী হিসেবে দাঁড়িয়ে পড়েছেন গেরুয়া শিবিরের আদি নেতারা।

তৃণমূল ত্যাগী বিজেপি নেতাদের প্রার্থী বানানোর জন্য বিক্ষোভ লাগাতার পদ্ম শিবিরে। প্রার্থী বদলের দাবিতে অগ্নিগর্ভ হয়ে উঠেছিল পরিস্থিতি। তারপরও বিজেপি নেতৃত্ব প্রার্থী বদল করেনি। তাই ইস্তফা দিতে শীর্ষ নেতৃত্বকে চিঠি লিখলেন ১৭জন স্থানীয় দাপুটে নেতা।

আরও পড়ুন-পদ্মপত্রে শিশিরবিন্দু! কাঁথির জনসভায় শিশির অধিকারীকে আমন্ত্রণ  বিজেপি’র, যোগদানের সম্ভাবনা তুঙ্গে

প্রার্থী বদলের দাবিতে টায়ার জ্বালিয়ে, পার্টি অফিস বন্ধ করে বিক্ষোভে সামিল হয়েছিলেন বিজেপির নেতাকর্মীরা। অন্যান্য জেলায় মতো নদিয়ার দক্ষিণ সাংগঠনিক জেলাতেও বিক্ষোভ তুমুল আকার নিয়েছিল। তারপর‌ও গেরুয়া নেতৃত্ব কোনও ব্যবস্থা গ্রহণ না করায়, ইস্তফার রাস্তায় হাঁটলেন বিজেপির ১৭ জন সদস্য।

এই নেতারা পরিষ্কার জানিয়ে দিয়েছেন, রানাঘাটের উত্তর-পশ্চিম কেন্দ্রের প্রার্থী পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে না বদল করলে তাঁরা বাধ্য হবেন ইস্তফা দিতে।

আরও পড়ুন-ইনিই পশ্চিমবঙ্গের ভাবী মুখ্যমন্ত্রী? নরেন্দ্র মোদীর গলায় স্পষ্ট ইঙ্গিত!

প্রাক্তন সাংসদ পার্থ চট্টোপাধ্যায় তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেন সম্প্রতি। এরপরই তাঁকে রানাঘাট উত্তর-পশ্চিম কেন্দ্র থেকে তাঁকে প্রার্থী করা হয়। নদিয়ার নেতা প্রাক্তন সাংসদ পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের নাম প্রার্থী তালিকায় দেখেই ক্ষোভের বিস্ফোরণ হয় রানাঘাটে। প্রার্থী বদলের দাবি ওঠে। আর তাই এবার ইস্তফার সিদ্ধান্ত ১৭জন নেতার।

Back to top button
%d